Site icon Backend Digital

ইউটিউব মার্কেটিং বা ভিডিও মার্কেটিং কিভাবে করবো?

ভিডিও মার্কেটিং

ইউটিউব মার্কেটিং

ইউটিউব কে ব্যবহার করে কোন পন্য, সেবা বা বিজনেসের ব্র্যান্ডইং করাই হলো ইউটিউব মার্কেটিং। তবে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড করে, তার এড থেকে প্রাপ্ত আয়কেও অনেকে ইউটিউব মার্কেটিং হিসেবে বিবেচনা করে। অবশ্য আমরা আজকে দুটো বিষয়ই আলোচনা করবো। সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং এর কথা বললে ফেসবুকের পরই ইউটিউব মার্কেটিং স্থান পায়।

ইউটিউব সম্পর্কে জেনে নিন কিছু তথ্য-

ইউটিউব থেকে আয়ের উৎস কি?

ইউটিউব থেকে আয়ের জন্য কি করতে হবে?

প্রথমেই Google AdSense এ আবেদন করতে হবে অ্যাডসেন্সের জন্য। এক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সব তথ্য দিতে হবে। ২০১৮ সালের নিয়ম অনুযায়ী প্রত্যেকটি ইউটিউব চ্যানেলকে কিছু যোগ্যতা অর্জন করতে হবে। যেমন –

ইউটিউবের ইউজার কারা?

  1. ভিজিটর (শুধুমাত্র ভিডিও দেখে থাকে)
  2. ইউটিউবার বা কনটেন্ট ক্রিয়েটর (যারা ভিডিও তৈরি করে আপলোড করে)
  3. বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানি (যারা ইউটিউবে পন্য বা সেবার জন্য পেইড প্রমোশন করে থাকে) 

ইউটিউব মার্কেটিং কেন গুরুত্বপূর্ণ?

ইউটিউব মার্কেটিং করতে হলে কি প্রয়োজন?

কোন ধরণের ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করতে হবে?

সফল হতে হলে ইউটিউবের এসইও করতে হবে

ইউটিউব চ্যানেল বানানোই শেষ নয়। যদি প্রচুর সাবস্কাইবার ও ভিওয়ার পেতে হয় তবে অবশ্যই চ্যানেলটির সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) করতে হবে। ইউটিউবের এসইও করার পক্রিয়া হলো –

ইউটিউব কি ওয়ার্ড রিসার্চ সাজেশন

তথসুত্রঃ জানতে ক্লিক করুন

পরিশেষে বলি

একজন আদর্শ ইউটিউব মার্কেটার হতে হলে অবশ্যই কোয়ালিটি এনশিওর করা উচিত। আমদের দেশে বেশিরভাগ ইউটিউবারই সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য বিভিন্ন স্পেমিং বা অহেতুক ভিডিও পাবলিশ করে। যদি উপরোক্ত গাইডলাইন মেনে চলতে পারেন, আশা করি আপনি খুব ভালো ইউটিউব বা ভিডিও মার্কেটারে পরিণত হবেন।

আরও পড়ুন ফেসবুক মার্কেটিং

Exit mobile version